top of page
Search

একপদেই বাজিমাত.... পাঁচটি রেসিপি দিলেন সমিতা হালদার...

গরমকাল, সব বাচ্চাদের পরীক্ষার সময়, মায়েদের খুব চিন্তা সহজে কি বানাই? আজ রইলো সহজ পাঁচটি রেসিপি, যা রাঁধলে একপদেই খাওয়া সারা হয়ে যাবে। আর খেতে বসে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হবেন সবাই...


গরমে আর কী কী মেনে চললে সুস্থ থাকবেন:


১.সানস্ক্রিন মেখে বেরোবেন অবশ্যই।


২.জল খেতেই হবে, মাটির কলসী খুব ভালো, ফ্রিজের বেশি ঠান্ডা জল একটু বুঝে খাবেন।


৩.ভাজাপোড়া না খেয়ে ফল,শরবত, টকদই এসব খান সুবিধামতো।


৪.পোশাক যেনো আরামদায়ক হয়।


৫.আর যারা হাঁটতে কি ব্যায়াম করেন কি জিমে যান একটু সাবধানে, সকালে কি সন্ধ্যায় যাওয়া ভালো।


৬.যদি পেটে ব্যথা, বমি ভাব কি মাথা ঘোরে তাহলে ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।



গাঠি কচুর ঝোল চিংড়ি দিয়ে


কিভাবে বানাবেন:

কচু কেটে জলের নীচে ২-৩ মিনিট কচলে ধুতে হবে,

তেল গরম করে তাতে মাছ হাল্কা।ভেজে তুলে নিয়ে তাতে কচু ভেজে তুলে নিয়ে তেলে জিরা,হিং, রসুন কুচি ফোরন।

তারপর আদা লংকা বাটা আর জিরা, ধনে গুড়ি অল্প জল দিয়ে কষা, নুন,চিনি,হলুদ, আর চাইলে হাল্ফ টোমাটো গ্রেট করে দেওয়া যায়। আমি দিইনি।

এইবার জল, সেদ্ধ হতে সময় লাগে, সেদ্ধ হলে ঝোল ঘন হয়ে গেলে মাছ, ফুটে গেলে ধনেপাতা কুচি আর কাঁচা লংকা।


সবজির মরিচ বাটা ঝোল


কিভাবে বানাবেন



তেলে পাঁচফোড়ন দিয়ে আলু হাল্কা ভেজে একে একে সব সবজি( আলু, পটল,কুমড়ো, ঝিঙে, চিচিঙ্গা, বিন্স) দিয়ে সাঁতলে নিতে হবে। এইবার জল দিয়ে নুন, চিনি দিয়ে ঢাকা দিয়ে সব্জি সেদ্ধ করে নিতে হবে।


এক চামচ কালোজিরা, আদা অল্প, কয়েকটি গোলমরিচ মিক্সারে বেটে নিয়ে এটা হাল্ফ কাপ দুধে মিক্স করে সবজি সেদ্ধ হলে মেশাতে হবে,ফুটে উঠলে গ্যাস অফ করে এক চামচ ঘি দিয়ে রেডি।


সহজপাচ্য এবং সুস্বাদু এই রেসিপি।


চিকেন স্টু


কিভাবে বানাবেন


এক চামচ সাদা তেলে তেজপাতা, লবঙ্গ, দারচিনি দিয়ে পেয়াজ কুচি দিয়ে অল্প ভেজে নিতে হবে। এরপর থেতো করা রসুন আর আদা মিশিয়ে সবজি গুলো দিয়েছি। ( আলু, পেঁপে, বিন্স, গাজর, টোমাটো চৌকো কাটা) তারপর অল্প সময় নেড়ে নিয়ে চিকেন দিয়ে মিনিট ২-৩ মিক্স করে নিয়ে দিয়েছি নুন, গোল মরিচ থেতো করা ১ চামচ মতো, তারপর এককাপ জলে দুধ নিয়েছি ১/২ কাপ, এটা কুকারে দিয়ে একটা সিটি।

কুকার খুলে দিয়েছি গোল মরিচ গুড়ো আবার আর একটু দারচিনি গুড়ো। আর ছাঁচি পেঁয়াজ দিয়ে কুকার ১০ মিনিট এমনিই বন্ধ করে রেখে দিয়েছি। রেডি।


আলু, পটল আর কাঁচা কুমড়োর ঝোল


কিভাবে বানাবেন


দু চামচ তেলে আলু পটল হালকা ভেজে, তাতে কুমড়ো ও একটু ভেজে নিয়েছি। তারপর ওই তেলেই চিংড়ি ভেজে তুলে কালোজিরে ফোরন দিয়ে, আদা আর জিরে বাটা, দুটো কাঁচা লংকা দিয়ে জল দিয়ে অল্প কষে সবজি ছেড়ে নুন হলুদ দিয়ে আঁচ কম করে বেশ কয়েক মিনিট কষে গরম জল। ঢেকে সেদ্ধ করে ঝোল ঘন হয়ে এলে চিংড়ি, একটু মিষ্টি দিয়েছি। তারপর সব আরেকটু ফুটলে বেশ স্বাদের একটা ঝোল তৈরি হবে।


সবজি মাছের মরিচ ঝোল


কিভাবে বানাবেন


সবজি কেটে নুন হলুদ মাখিয়ে ভেজে নিন, আমি পটল, আলু, বিন্স আর বড়ি দিয়েছি। যে তেলে মাছ ভাজা হবে সেই তেলেই সবজি ভেজে উঠিয়ে তাতে কালোজিরা দিয়ে, জিরা আদা হলুদ আর একটু গোলমরিচ জলে গুলে দিতে হবে, এইবার ওতে সবজি দিয়ে বেশ একটু ভেজে নিয়ে জল, ঝোল ফুটে গেলে নুন, মাছ ছেড়ে বড়ি দিয়ে ফুটতে দিতে হবে, সব সেদ্ধ হয়ে এলে চেরা কাঁচা লংকা। গরমের অনুযায়ী সবজি দেবেন বাজারে যা পাওয়া যায়। আর হ্যাঁ মাছ যদি টাটকা হয় এই ঝোলেই ভাত খাওয়া হয়ে যায়। আর সব সব্জি মাছ একসাথে তাই মায়েদের আলাদা সবজি রান্নার খাটনি কমে যায়।

সাথে একটু কাগজি লেবু নিতে ভুলবেন না।

Comments


bottom of page