top of page
Search

দোকানের মতো মিষ্টি হবে, এবার বাড়িতেই... লিখেছেন কৌশিকী সরকার...

রান্না করতে ভালোবাসেন, সব রান্নাই সুনিপুণ দক্ষতায় করে ফেললেও, মিষ্টি বানানোর কথা এলেই একটু থেমে যান? যদি ঠিকঠাক না হয়...সব তো নষ্ট হবে! তাছাড়াও একগাদা উপকরণ কিনে আনো, সে বড় ঝক্কি!! এবার, বাড়িতে থাকা উপকরণ দিয়েই চোখের নিমেষে বানিয়ে ফেলতে পারবেন একেবারে দোকানের মতো মিষ্টি। জিভে জল আনা ৫ টি রেসিপি দিলেন কৌশিকী সরকার...




রাবড়ি


কী কী লাগবে:


১ লিটার ফুল ফ্যাট দুধ,


হাফ কাপ চিনি,


সামান্য এলাচ গুঁড়ো,


সামান্য কেশর


কীভাবে বানাবেন:


একটি বড় কড়াইয়ে দুধ জ্বাল দিতে হবে, সর পড়লে খুন্তি দিয়ে কড়ায়ের গায়ে লাগাতে হবে ।


যখন দুধের পরিমাণ প্রায় ৩০০ মিলি হয়ে আসবে তখন দুধের মধ্যে চিনি, কেশর ও এলাচ গুঁড়ো মিশিয়ে নিতে হবে।


এবার একটা খুন্তি দিয়ে কড়াইয়ের গায়ে লেগে থাকা সর কেটে দুধের মধ্যে মিশিয়ে নিতে হবে।


ব্যস তৈরি হয়ে যাবে দোকানের মতো রাবড়ি।




লেয়ার্ড ম্যাংগো সন্দেশ


কী কী লাগবে:


৪০০ গ্রাম ছানা,

চিনি স্বাদমতো,

৪ টেবিল চামচ গুড়ো দুধ ,

৪ টেবিল চামচ কনডেন্সড মিল্ক ,

হাফ কাপ আমের পাল্প ,

সামান্য পেস্তা কুচি


কিভাবে বানাবেন:

একটি মিক্সারে অর্ধেক পরিমাণ ছানা, তিন চামচ চিনি, কনডেন্সড মিল্ক দিয়ে ভালো ভাবে মিক্স করে নিয়ে একটা গ্রিজ করা কেক টিনে দিয়ে দিতে হবে।

একটা কড়াইতে জল গরম করে তার উপর কেক টিন বসিয়ে পাঁচ মিনিট স্টিম করতে হবে।

এবার আবারও একটা মিক্সারে বাকি ছানা, চিনি ও আমের পাল্প ভালোভাবে মিশিয়ে ওই একই কেক টিনে দিয়ে আরও দশ মিনিট স্টিম করে নিতে হবে।

ঠান্ডা হলে পছন্দমত শেপে কেটে পিস্তাকুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন ।


ফিরনি


কী কী লাগবে:

১ লিটার ফুল ক্রিম দুধ ,

৭৫ গ্রাম বাসমতি চাল ,

১০০ গ্রাম চিনি ,

এক চিমটি কেশর ,

পেস্তা ও গোলাপের পাপড়ি সাজানোর জন্য



কিভাবে বানাবেন:


চাল একবার ধুয়ে আধ ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে মিক্সারে গুঁড়ো (দানা থাকবে অনেকটা সুজির মতো) করে রাখতে হবে।

চালের গুঁড়োর মধ্যে এক কাপ দুধ মিশিয়ে নিতে হবে।

এবার একটি কড়াইতে ফুল ক্রিম দুধ জ্বাল দিতে হবে।

প্রায় দশ মিনিট ফুটে উঠলে চালের গুড়ো দুধের মধ্যে মিশিয়ে ক্রমাগত নাড়তে হবে।

দুধ ও চালের মিশ্রণ ঘন হয়ে এলে তাতে কেশর , চিনি ও এলাচ গুড়ো মেশাতে হবে।

আরও মিনিট দুয়েক জ্বাল করে নিলেই রেডি ফিরনি।

পছন্দমত ড্রাই ফ্রুট ও গোলাপের পাপড়ি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন ফিরনি।




নারকেল মালাই লাড্ডু


কী কী লাগবে:

২ কাপ শুকনো নারকেল কোরা

১কাপ দুধ

৩/৪ কাপ চিনি

৪ টেবিল চামচ গুঁড়ো দুধ,

টেবিল চামচ ঘি,

সামান্য এলাচ গুঁড়ো


কীভাবে বানাবেন:

একটি কড়াই ঘি গরম করে তাতে নারকেল কোরা দিয়ে দু -তিন মিনিট নাড়াচাড়া করে সুন্দর গন্ধ বের হলে তাতে দুধ দিতে হবে।

দুধ শুকিয়ে এলে চিনি গুঁড়ো দুধ ও এলাচ দিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে।

মিশ্রণ একটু শুকিয়ে এলে গ্যাস বন্ধ করে উষ্ণ গরম অবস্থায় লাড্ডু বানিয়ে নিলেই রেডি নারকেল মালাই লাড্ডু। চাইলে লাড্ডু গুলো শুকনো নারকেল কোরার উপর গড়িয়ে সাজাতে পারেন।


কেশরী চমচম


কী কী লাগবে :

২.৫ লিটার দুধ,

২০০ গ্রাম টক দই

১চা চামচ কর্ণফ্লাওয়ার

এক চিমটি খাবার সোডা

১ কাপ+ ৪ টেবিল চামচ চিনি

সামান্য কেশর

সাজানোর জন্য কুচানো ড্রাই ফ্রুট্স


কিভাবে বানাবেন:

রুম টেম্পারেচারে রাখা টক দই ভালো করে ফেটিয়ে নিতে হবে।

২ লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে ফুটে উঠলে গ্যাস বন্ধ করে দু মিনিট পর ফেটিয়ে রাখা দই দিয়ে ছানা কেটে নিতে হবে । ছানা একবার জল দিয়ে ধুয়ে কাপড়ে ঝুলিয়ে রাখতে হবে আধ ঘণ্টা।

জল ঝরানো ছানা ও কর্ণফ্লাওয়ার ভালো করে মেখে সমান সাইজের চমচমের শেপ দিতে হবে।

১ কাপ চিনি ও হাফ লিটার জল ফুটিয়ে তাতে একে একে চমচম গুলো দিয়ে প্রথমে হাই ফ্লেমে পনেরো মিনিট ঢেকে ও তারপর মিডিয়াম দশ মিনিট ফ্লেমে মিডিয়াম ফ্লেমে বয়েল করতে হবে।

চমচম ঠান্ডা হলে রস চিপে নিতে হবে।

বাকি দুধ ফুটিয়ে তাতে চিনি ও কেশর দিয়ে অল্প ঘন হলে চমচম দিতে হবে।

দুই থেকে তিন মিনিট ফুটিয়ে নিলেই রেডি চমচম।

ঠান্ডা হলে ড্রাই ফ্রুট দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন কেশরী চমচম ।



রেসিপি এবং ছবি সৌজন্যেঃ কৌশিকী সরকার

Comments


bottom of page