top of page
Search

প্রায় হারিয়ে যাওয়া পাঁচটি নিরামিষ রান্না... রেসিপি দিলেন রিঙ্কু মিত্র...

কথায় আছে, নিরামিষ রান্না যে ভালো রাঁধতে জানে সেই আসল রাঁধুনী। সামান্য মশলা আর হাতের জাদুতে একের পর এক ম্যাজিক... অসাধারণ স্বাদের পাঁচটি সম্পূর্ন নিরামিষ রেসিপি রইলো আজ...

সব্জি  মুগ


উপকরণ: 


মুগ ডাল - এক কাপ

আলু, ঝিঙে, বরবটি- প্রয়োজন মতন 

সরষের তেল- তিন টেবিল চামচ

পাঁচ ফোড়ন- এক চা চামচ

শুকনো লঙ্কা-  দুটি

তেজপাতা- একটা 

জিরে গুঁড়ো- আধ চা চামচ

ধনে গুঁড়ো- আধ চা চমচ

কাশ্মিরী লঙ্কা গুঁড়ো- আধ চা চামচ

আদা (গ্রেট করে বা বাটা)- এক চা চামচ 

নুন ও মিষ্টি-  স্বাদ মতন

হলুদ-- এক চা চামচ 

ঘি এক চা চামচ 

চিনি- এক চা চামচ 

প্রণালী: 


মুগ ডাল ধুয়ে ভিজিয়ে রাখুন দশ মিনিট ।


আলু, ঝিঙে ডুমো করে কেটে নিন।


কড়াইতে সরষের তেল দিন। কেটে রাখা আলু ভেজে তুলে রাখুন ।


এবার পাঁচ ফোড়ন, শুকনো লঙ্কা আর তেজপাতা দিন। গন্ধ বেরোলে মুগ ডাল জল ঝরিয়ে দিন ।


ভালো করে সব উপকরণ ভেজে নিন ।


এবার ঝিঙে দিন এবং নুন দিয়ে নাড়াচাড়া করে ঢাকা দিন। জল বেরিয়ে ডাল নরম হয়ে আসবে।


এবার জিরে, ধনে, হলুদ ও লঙ্কা গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। অল্প জল দিন যাতে মশলা পুড়ে না যায়।


এবার পরিমান মত গরম জল দিন।


ভাজা আলুগুলো এবার দিয়ে দিন এবং সাথে নুন, মিষ্টি দিন।


ঢাকা দিয়ে রান্না হতে দিন যতক্ষন না ডাল সেদ্ধ হয় ।


সব শেষে ঘি দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন। এটা ভাত, রুটি অথবা পরোটা, অর্থাৎ সব কিছুর সাথেই খুব ভালো লাগে খেতে।


থোড়ের কোফতা


উপকরণ: 


কুচোনো থোড় - এক মাঝারি বাটি

আলু সেদ্ধ - এক মাঝারি বাটি 

জিরে গুঁড়ো - দেড় টেবিল চামচ 

ধনে গুঁড়ো - আধ চা চামচ 

লঙ্কা গুঁড়ো - আধ চা চামচ 

বেসন বা ছাতু - দেড় টেবিল চামচ 

নারকেল কুড়নো - তিন টেবিল চামচ 

কিশমিশ বাটা - দুই টেবিল চামচ 

ডুমো করে কাটা আলু 

নুন,চিনি - স্বাদ মতো

ঘি - এক চা চামচ 

গরম মশলা - এক চা চামচ 


প্রণালী: 


আলু আর কুচানো থোড় আলাদাভাবে সেদ্ধ  করে জল ঝরিয়ে  নেবেন।


ঠান্ডা হলে, সব গুঁড়ো মশলা দিয়ে সাথে বেসন বা ছাতু দিয়ে মেখে নিন।


নিজের পছন্দ মতন আকারে তৈরি করে ভেজে তুলে রাখুন ।


কড়াইতে তেল দিয়ে ডুমো করে কাটা আলু ভেজে তুলে নিন ।


গোটা জিরে, থেতো  করে রাখা গরম মশলা, একটু হিং আর লঙ্কা ফোড়ন দিন।


জিরে, ধনে ও লঙ্কা গুঁড়ো একটু জলে গুলে মশলাটা কষিযে নিন ধিমে আঁচে ।


তেল ভেসে উঠলে কিশমিশ বাটা দিন।একটু কষিয়ে নিন। পরিমান  মত জল দিন।


এবার একটি পাত্রে আগে থোরের বড়াগুলো রেখে ওপর থেকে ঝোল ঢেলে দিন। বড়া দিয়ে একদম ফোটাবেন না।


ঘি গরম মশলা দিযে একটু ঢেকে পরিবেশন করুন।

কুমড়ো পাতায় কুমড়ো ফুল ভাপা


উপকরণ 


কুমড়ো পাতা - চার /পাঁচটা 

কুমড়ো ফুল - দুই আঁটি 

সরষে ও নারকেল বাটা - তিন টেবিল চামচ 

অল্প লেবুর রস 

লঙ্কা বাটা - এক চা চামচ 

নুন,চিনি - স্বাদ মতো


প্রনালী 


কুমড়ো পাতা ধুয়ে নুন মাখিয়ে নিন।


কুমড়ো ফুল পরিস্কার করে হাত দিয়ে ছিঁড়ে নিন।


একটা পাত্রে সব মশলা মিশিয়ে ফুল গুলে মিশিয়ে নিয়ে ভাপিয়ে নিন।


এটা পাতুরির মতো সেঁকা করেও খুব ভালো লাগে।


আম পুদিনা রায়তা


উপকরণ 


আম - একটি 

পুদিনা পাতা - এক আঁটি 

শুকনো লঙ্কা - দুটি, পুড়িয়ে নেবেন 

বিট নুন, নুন ও চিনি - স্বাদ মতো

দই - এক বাটি

চাট মশলা - এক চা চামচ 

 

প্রনালী 


আম পুড়িয়ে শাঁস বের করে নিন।


দই , আম, পুদিনা এক সাথে বেটে নিন।


স্বাদমত নুন, চিনি ও বিট নুন দিন।


চাট মশলা দিয়ে পরিবেশন করুন।

ফুলটুপরি


উপকরণ 


কুমড়ো ফুল - এক আঁটি 

ছোলার ডাল ভিজিয়ে বেটে নেওয়া - এক কাপ

কাজু,কিশমিশ কুচোনো - দুই টেবিল চামচ 

পনীর (গ্রেট করে নেওয়া) - এক কাপ

নুন, মিষ্টি - স্বাদমতন 

ভাজার জন্য  তেল

গরম মশলা গুঁড়ো - এক চা চামচ 

বেসন - এক কাপ (কুমড়ো ফুলের পরিমাণ বুঝে)


 প্রণালি 


কুমড়ো ফুলের ভেতরের কেশরটা ফেলে খুব সাবধানে ধুয়ে নিন।


ছোলার ডাল বাটা তেলে কষিয়ে নিন।


ঠান্ডা  হলে গ্রেট করা পনীর, কাজু কিশমিশ কুচি, নুন, মিষ্টি, গরম মশলা দিয়ে মেখে নিন।


কুমড়ো ফুলের মধ্যে এই মিশ্রন অল্প করে নিয়ে পুরের মত দিন ।


বেসন জলে একটু নুন দিয়ে গুলে নিন।


ফুলগুলো একটা একটা করে গোলায় ডুবিয়ে সাবধানে ভাজুন। ওপরে চাট মশলা দিতে পারেন ।


এটা ভাতের পাতে বা এমনি খেতে ও খুব ভালো।

Comments


bottom of page