top of page
Search

বাচ্চা রোজ রোজ টিফিন শেষ না করেই ফেরৎ আনছে? গরমে কী দেবেন দেখে নিন।


বর্তমানে দিনের অনেকটা সময় বাচ্চারা স্কুলে থাকে। ধরুন ঐ সময়টুকু হিসেব করে ওর পুষ্টি চাহিদা মেটানোর জন্য আপনি একগাদা টিফিন দিয়ে দিলেন, আর বাচ্চা না খেয়ে অর্ধেক ফেরৎ নিয়ে এলো! সেই দেখে মাথা গরম করে বকাঝকা করলেন, অথবা রান্না ভালো হয়নি ভেবে মন খারাপ করলেন। এটা করবেন না। এটা খুবই স্বাভাবিক বিষয়। তার বদলে সুন্দর করে সাজিয়ে, হাই ক্যালোরি যুক্ত খাবার দিন, যা অল্প খেলেই পেট ভরবে। আর মুখরোচক এবং দৃষ্টিনন্দন হওয়ার কারনে বাচ্চারা সেই খাবারের প্রতি আকর্ষণ অনুভব করবে। এইরকম'ই দুটি পুষ্টিগুণে ভরপুর রেসিপি রইলো, যা বাচ্চা থেকে বড় সবার মন জয় করবে। রেসিপি দিলেন দ্যুতি রায় বিশ্বাস।

বিটরূটের উপকারিতা:

নানা ধরনের অসংক্রামক রোগ প্রতিরোধে বিট জুস বেশ উপকারী। এতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ক্যান্সার, হৃদরোগ, আর্থাইটিস, চোখের সমস্যাসহ নানা ধরনের রোগ সারাতে সাহায্য করে। পর্যাপ্ত পরিমাণে বিট জুস খেলে শরীরের টক্সিন দূর হয়। শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও এ জুস বেশ উপকারী।


বিটরূট পরোটা



কী কী লাগবে



সাদা তেল  ২ চা চামচ, আদা বাটা আধ চা চামচ, কাঁচা লঙ্কা ১টি, বিট (গ্রেট করা) দেড় কাপ, নুন পরিমাণ মতো, জল ২ টেবিলচামচ, আটা ২ কাপ, জিরে গুঁড়ো আধ চা চামচ,


গরম মশলা গুঁড়ো আধ চা চামচ, চাট মশলা অথবা আমচুর পাউডার আধ চা চামচ, জোয়ান ১ চিমটি, নুন পরিমাণ মতো, ধনেপাতা।



কিভাবে বানাবেন



কড়াইতে তেল গরম হলে একে একে আদা বাটা, কাঁচালঙ্কা, গ্রেট করা বিট, নুন দিয়ে ২ মিনিট নাড়াচাড়া করে এর মধ্যে ২ টেবিলচামচ জল দিয়ে ঢেকে অল্প আঁচে ১০ মিনিট রান্না করুন। সেদ্ধ হলে ঠান্ডা করে বেটে নিন। 


এবার একটি বড় পাত্রে আটা, জিরে গুঁড়ো, গরম মশলা গুঁড়ো, চাট মশলা বা আমচুর পাউডার, জোয়ান, নুন, ধনেপাতা কুচি দিয়ে ভালো করে মেখে ঢেকে রাখুন আধঘন্টা। পরোটার মতো করে বেলে তেলে ভেজে তুলে নিন।


পোহার উপকারিতা:

প্রোটিন, মাইক্রোনিউট্রিয়েন্টস, ফাইবার এবং কার্বোহাইড্রেটের একটি চমৎকার উৎস। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, চিঁড়ের পোলাও ওজন কমানোর ক্ষেত্রে ও কার্যকরী।

পোহা ফিঙ্গার



কী কী লাগবে



পোহা দেড় কাপ, সেদ্ধ আলু ২ টি, পেঁয়াজ কুচি ১/৪ কাপ, ক্যাপসিকাম কুচি ১/৪ কাপ, কাঁচা লঙ্কা কুচি ২টি, ধনে পাতা কুচি অল্প পরিমাণ,


আদাবাটা আধ চা চামচ, জিরে গুঁড়ো আধ চা চামচ, আমচুর পাউডার ১/৪ চা চামচ, চাট মশলা ১/৪ চা চামচ, লঙ্কাগুঁড়ো আধ চা চামচ,


নুন পরিমাণ মতো, চালের গুঁড়ো ৩ টেবিল চামচ, ডিম ২টি, গোলমরিচ গুঁড়ো সামান্য, ব্রেডক্রাম্ব, ভাজার জন্য সাদা তেল।



কিভাবে বানাবেন



পোহা ভালো করে ধুঁয়ে জল ঝরিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন। একটি পাত্রে পোহা, সেদ্ধ আলু, আদা বাটা, পেঁয়াজ কুচি, কাঁচা লঙ্কা কুচি, ক্যাপসিকাম কুচি, জিরে গুঁড়ো, লঙ্কা গুঁড়ো, আমচুর পাউডার, চাট মশলা, পরিমাণ মতো নুন, ধনেপাতা কুচি এবং চালের গুঁড়ো দিয়ে ভালো করে মেখে মন্ড তৈরী করে নিন।


ডিম ফেটিয়ে তার মধ্যে পরিমাণ মতো নুন ও গোলমরিচ গুঁড়ো একসাথে ফেটিয়ে রাখুন। পছন্দমতো আকারে গড়ে ফেটানো ডিমের গোলায় ডুবিয়ে ব্রেডক্রাম্ব দিয়ে কোট করুন। ১০ মিনিট ফ্রিজে রেখে ডুবো তেলে সোনালী করে ভেজে তুলে নিলেই তৈরী।


রেসিপি এবং ছবি সৌজন্যেঃ দ্যুতি রায় বিশ্বাস

অনুলিখন সুস্মিতা মিত্র

Comments


bottom of page