top of page
Search

সারাবছর পা ফাটার সমস্যায় ভোগেন? কয়েকটি নিয়ম মেনে চললেই ফল মিলবে হাতেনাতে...

সারাদিন যত অত্যাচার পায়ের ওপর, আবার সবথেকে বেশি অবহেলিত হয় আমাদের পা গুলোই। ফেসপ্যাক নিয়ম করে লাগালেও পায়ের যত্ন নিতে আমরা ভুলে যাই। যেমন নোংরা পা ভালোভাবে পরিষ্কার না করে শুতে গেলেই পা ফাটতে পারে। শুধু তাই নয়, অনিয়মিত খাওয়া-দাওয়া, জীবনযাপন প্রণালী, ভিটামিন ই-র অভাব, ক্যালশিয়াম ও আয়রনের অভাবে গোড়ালি ফাটতে শুরু করে।


এছাড়াও শুষ্ক মরশুম আর আর্দ্রতার ঘাটতিতে এও এই সমস্যা হয়। পায়ের গোড়ালি ফেটে গেলে তা সারাতে ঘরোয়া কিছু সমাধান নিজেই করতে পারেন...


পা ফাটা সারানোর উপায়গুলো জেনে নিন:


১.মোমবাতির মোম:


মোমবাতির মোমের সঙ্গে সরষের তেল মিশিয়ে তা ফাটা স্থানে লাগিয়ে সারা রাত রেখে দিন। এতে পা ফাটা সেরে যাবে।


২.গ্লিসারিন ও গোলাপজল:


গোলাপজলের সঙ্গে কিছুটা গ্লিসারিন মেশান। এই মিশ্রণ পায়ের গোড়ালিতে লাগিয়ে সারা রাত রেখে দিন। এতে পা ফাটা ও ব্যাথা কমবে।


৩.তিলের তেল:


পা ফাটা সমস্যা সমাধানে তিলের তেল দারুণ কার্যকর। পায়ে তিলের তেল মাখলে পা ফাটা দূর হয়।


৪.ভ্যাসলিন ও লেবুর রস:


ভ্যাসলিনের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে তা ফাটা স্থানে মালিশ করুন। এতে পা ফাটা দ্রুত সেরে যায়।


৫.মধু-জল:


এক কাপ মধু আধ বালতি গরম জলে মিশিয়ে এতে ১৫ থেকে ২০ মিনিট পা ভিজিয়ে রাখুন। এতে পা ফাটা দূর হবে।


৬.বেকিং সোডা:


বেকিং সোডা ফাটা গোড়ালি সারিয়ে তোলার পাশাপাশি পায়ের দুর্গন্ধও দূর করতে সহায়ক। ঈষদুষ্ণ জলে তিন চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে তাতে ১৫ মিনিটের জন্য পা ডুবিয়ে রাখতে হবে। এর পর পিউমিক পাথর দিয়ে ঘষে পা পরিষ্কার করুন। পা ভালো করে ধুয়ে মুছে নিতে হবে।


৭.পাকা কলা:


দুটি পাকা কলা দিয়ে একটি পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তার পর পা ভালো করে ঘষে পরিষ্কার করে ফাটা অংশে ভালো ভাবে কলার পেস্ট লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট লাগিয়ে রাখার পর ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে ভালো করে পা ধুয়ে নিতে হবে। নিয়মিত কলার পেস্ট লাগালে শীঘ্র উপকার পাবেন।


৮.অ্যালোভেরা:

অ্যালোভেরায় ভিটামিন এ, সি এবং ই থাকে। পাশাপাশি এতে অ্যান্টি ব্যাক্টিরিয়াল গুণও বর্তমান। তাই ফাটা গোড়ালি সারিয়ে তুলতে সংক্রমণ আটকাতে অ্যালোভেরা ব্যবহার করতে পারেন। ঈষদুষ্ণ জলে সাবান দিয়ে পা ভালো ভাবে ঘষে ধুয়ে নিতে হবে। পিউমিক পাথর দিয়ে গোড়ালি ঘষতে ভুলবেন না। তার পর মোটা করে অ্যালোভেরার জেল লাগিয়ে নিন। রাতে ঘুমানোর আগে এমন করুন। পায়ে মোজা পরে ঘুমাতে যান। সকালে উঠে হালকা গরম জল দিয়ে পা ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে।

Comentários


bottom of page